FULL DETAILS INFORMATION OF WESTBENGAL GK FOR WBCS MAIN, SSC, PSC, WBP, RAIL, EXAM

FULL DETAILS INFORMATION OF WEST BENGAL GK FOR WBCS MAIN, SSC, PSC, WBP, RAIL, EXAM. SO STUDY HIS QUESTION VERY CAREFULLY AND WRITE DOWN ON YOUR NOTE BOOK ALSO. IT IS SO IMPORTANT FOR RAILWAY GROUP-D, PSC, WBP , FIRE OPERATOR ETC EXAM. 

** কবে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যটির প্রতিষ্ঠা হয়েছিলো?
উঃ ২৬ জানুয়ারী, ১৯৫০।
** পশ্চিমবঙ্গের আয়তন কত?
উঃ ৮৮,৭৫২ বর্গকিমি।
** পশ্চিমবঙ্গে লোকসংখ্যা কত?
উঃ ২০১১ সালের জনগণনা অনুযায়ী, এই রাজ্যের লোক সংখ্যা ৯ কোটি ১ লক্ষেরও বেশি।
** পশ্চিমবঙ্গের রাজধানীর নাম কী?
উঃ কোলকাতা।
** পশ্চিমবঙ্গের বৃহত্তম শহর কোনটি?
উঃ কোলকাতা।
** পশ্চিমবঙ্গের জেলার সংখ্যা কয়টি?
উঃ ২৩ টি।
** পশ্চিমবঙ্গের সবচেয়ে ছোট জেলা কোনটি?
উঃ কোলকাতা।
** পশ্চিমবঙ্গের কোন জেলায় সবচেয়ে বেশি লোক বাস করে?
উঃ মেদনীপুর জেলায়।
** পশ্চিমবঙ্গের কোন জেলায় সবচেয়ে কম লোক বাস করে?
উঃ দার্জিলিং জেলায়।
** পশ্চিমবঙ্গের প্রধান ভাষা কী?
উঃ বাঙলা।
** পশ্চিমবঙ্গের অধিবাসীদের কী বলে?
উঃ বাঙালী।
** পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশী রাজ্য কি কি?
উঃ বিহার, ঝাড়খন্ড, উড়িষ্যা, সিকিম ও আসাম।
** পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশী দেশ কি কি?
উঃ পূর্বদিকে বাংলাদেশ এবং উত্তরদিকে নেপাল ও ভুটান অবস্থিত।
** পশ্চিমবঙ্গ কোন জলবায়ুর অন্তর্গত?
উঃ মৌসুমী জলবায়ুর অন্তর্গত।
** পশ্চিমবঙ্গের কোথায় অধিক বৃষ্টিপাত হয়?
উঃ দার্জিলিং ও জলপাইগুড়ি জেলায়।
** পশ্চিমবঙ্গের কোথায় সবচেয়ে কম বৃষ্টিপাত হয়?
উঃ বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া জেলায়।
** পশ্চিমবঙ্গবাসীর প্রধান খাদ্য কি?
উঃ ভাত।
** পশ্চিমবঙ্গের কয়টি বিভাগ ও কি কি?
উঃ পশ্চিমবঙ্গে তিনটি বিভাগ। যথা- প্রেসিডেন্সি বিভাগ, বর্ধমান বিভাগ ও জলপাইগুড়ি বিভাগ।
** পশ্চিমবঙ্গের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা কত?
উঃ প্রায় ৬০ হাজার।
** পশ্চিমবঙ্গের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা কত?
উঃ প্রায় ৬০ হাজার।
** পশ্চিমবঙ্গে কলেজের সংখ্যা কত?
উঃ ২০০টি।
** পশ্চিমবঙ্গের প্রধান নদী কোনটি?
উঃ গঙ্গা।
** পশ্চিমবঙ্গের সর্বোচ্চ শৃঙ্গটির নাম কী?
উঃ সান্দাকফু(৩,৬৩৬ মিটার)।
** পশ্চিমবঙ্গের প্রধান ঋতু কয়টি ও কি কি?
উঃ পশ্চিমবঙ্গের প্রধান ঋতু চারটি । যথা- গ্রীষ্ম, বর্ষা, শরৎকাল ও শীতকাল।
** পশ্চিমবঙ্গের রাষ্ট্রীয় পশু কি?
উঃ মেছোবাঘ।
** পশ্চিমবঙ্গের রাষ্ট্রীয় পাখিটির নাম কী?
উঃ ধলাগলা মাছরাঙা।
** পশ্চিমবঙ্গের জাতীয় ফুলের নাম কী?
উঃ শিউলি ফুল।
** পশ্চিমবঙ্গের জাতীয় গাছের নাম কী?
উঃ ছাতিম।
** পশ্চিম বঙ্গে মোট কয়টি জাতীয় উদ্যান আছে?
উঃ ছয়টি। যথা- সুন্দরবন জাতীয় উদ্যান, বক্সা জাতীয় উদ্যান, গোরুমারা জাতীয় উদ্যান, নেওড়া উপত্যকা জাতীয় উদ্যান, সিঙ্গালিলা জাতীয় উদ্যান ও জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান।
** পশ্চিমবঙ্গের কোথায় রয়্যালবেঙ্গল টাইগার দেখা যায়?
উঃ সুন্দরবনে।
** পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রীর নাম কী?
উঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
** পশ্চিমবঙ্গের সর্বোচ্চ বিচারালয়ের নাম কী?
উঃ কোলকাতা হাইকোর্ট।
** পশ্চিমবঙ্গের আইনসভা কী নামে পরিচিত?
উঃ বিধানসভা নামে পরিচিত।
** পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় খেলা দুটির নাম কি কি?
উঃ ক্রিকেট ও ফুটবল।
#Group_B
#পশ্চিমবঙ্গের_ভূগোল
1. বাংলার যে জেলার ওপর দিয়ে কর্কটক্রান্তি রেখা গেছে – নদিয়া, বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া
2. বাংলার পূর্বদিকে অবস্থিত দেশ হল – বাংলাদেশ ।
3. বর্তমানে বাংলার জেলার সংখ্যা হল – 23টি ।
4. উত্তর – পূর্ব ভারতের প্রবেশ দ্বার বলা হয় – শিলিগুড়িকে ।
5. দক্ষিণবঙ্গের প্রবেশ দ্বার হল – ক্যানিং ।
6. বিহার রাজ্যের বিচ্ছিন্ন অংশটি বাংলায় যে জেলা নামে পরিচিত – পুরুলিয়া ।
7. বাংলার ওপর লম্বভাবে সূর্যকিরণ পড়ে – 21 শে জুন ।
8. সুন্দরবন ম্যানগ্রোভ বাদাবন অবস্থিত যে জেলায় – দক্ষিণ 24 পরগনা ।
9. প্রেসিডেন্সি বিভাগের অন্তর্গত জেলাসদর হল – আলিপুর ।
10. ‘Chicken’s Neck’ বলা হয় – উত্তর দিনাজপুরের চোপড়াকে ।
11. ‘City of Joy’ বলা হয় – কলকাতাকে ।
12. বাংলার উত্তরের সমভূমি অংশ হল – বরেন্দ্রভূমি ।
13. বাংলা ও নেপাল সীমান্তে রয়েছে – সিঙ্গলিলা ।
14. বাংলার সর্বোচ্চ শৃঙ্গ – সান্দাকফু ।
15. বাংলার মালভূমি অঞ্চলের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ হল – গোর্গাবুরু ।
16. বাংলায় বালিয়াড়ি দেখা যায় – উপকূলীয় সমভূমিতে ।
17. রাঢ় সমভূমির ভূপ্রকৃতি – তরঙ্গায়িত ।
18. কালিম্পঙ -এর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ হল – ঋষিলা ।
19. বক্স গিরিখাত দিয়ে যাওয়া যায় – ভুটানে ।
20. বক্রেশ্বরের উষ্ণ প্রস্রবণ দেখা যায় – বীরভূমে ।
21. পেডং কথার অর্থ – অর্কিডের শহর ।
22. তরাই শব্দের অর্থ – স্যাঁতসেঁতে ভূমি ।
23. শুশুনিয়া পাহাড় অবস্থিত – বাঁকুড়া জেলায় ।
24. দার্জিলিং পার্বত্য অঞ্চলের সর্বোচ্চ Rail Station হল – ঘুম ।
25. রাঙামাটির দেশ বলা হয় – রাঢ় অঞ্চলকে ।
26. মথুরাখালি পাহাড় অবস্থিত – বীরভূমে ।
27. গঙ্গা দুভাগে বিভক্ত হয়েছে মুর্শিদাবাদের – ধুলিয়ানে ।
28. গঙ্গা বাংলায় প্রবাহিত হয়েছে – 520 কিমি ।
29. বাংলার প্রধান নদী – গঙ্গা ।
30. দামোদরনদকে বলা হয় – বাংলার দুঃখ ।
31. বহরমপুর বিখ্যাত – রেশম শিল্পের জন্য ।
32. রাঢ় অঞ্চলের সবচেয়ে বড়ো শহর হল – বর্ধমান ।
33. বাংলার দুটি প্রধান মৎস্য শিকার কেন্দ্র হল – দিঘা ও জুনপুট ।
34. ভারতে প্রথম পাতাল রেল চালু হয় – কলকাতায় ।
35. হলদিয়া বিখ্যাত – পেট্রোরসায়ন শিল্পের জন্য ।
36. কৃষ্ণনগর বিখ্যাত – মৃৎ শিল্পের জন্য ।
37. জলপাইগুড়ি শহর অবস্থিত – তিস্তা ও করলা নদীর তীরে ।
38. শংকরপুর একটি – মৎস্য বন্দর ।
39. বাংলায় প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয় অবস্থিত – কলকাতায় (বেলগাছিয়া) ।
40. লোথিয়ান আইল্যান্ড অভয়ারণ্যটি অবস্থিত – দক্ষিণ 24 পরগনায় ।
41. বক্সা অভয়ারণ্যটি স্থাপিত হয় – 1986 সালে ।
42. বার্ড ফ্লু নির্ণয় কেন্দ্রটি অবস্থিত – কলকাতার বেলগাছিয়ায় ।
43. দমদম বিমান বন্দরের পত্তন হয়েছিল – 1875 সালে ।
44. বাংলায় ধানের বউল বলা হয় – বর্ধমানকে ।
45. জয়ন্তি হল – সংরক্ষিত বনভূমি ।
46. সুন্দরবন হল – সুরক্ষিত বনভূমি ।
47. খোয়াই অঞ্চল দেখা যায় – বীরভূম জেলায় ।
48. উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরের অধিক কাদাযুক্ত মাটি – খিয়র নামে পরিচিত ।
49. তাল শব্দের অর্থ – জলাভূমি ও নিম্নভূমি ।
50. সুন্দরবনের যেসব অঞ্চলে কৃষিকাজ হয়, তাকে – আবাদ বলে ।
51. বাংলায় সবচেয়ে কম বৃষ্টি হয় – বীরভূমের ময়ূরেশ্বরে ।
52. বাংলায় সবচেয়ে বেশি উষ্ণতা দেখা যায় – আসানসোলে ।
53. মৌসুমি রাজ্য বলা হয় – বাংলাকে ।
54. খরার জেলা বলা হয় – পুরুলিয়াকে ।
55. বাংলায় সর্বাধিক বৃষ্টিপাত হয় – বক্সা ডুয়ার্সে ।
56. করোনেশন ব্রিজ অবস্থিত – তিস্তা নদীর ওপর ।
57. কানা নদীর মধ্যবর্তী ও শেষ অংশের নাম – কুন্তী নদী ।
58. দামোদরের প্রধান উপনদীর নাম – বরাকর ।
59. সুন্দরবন অঞ্চলের বৃহত্তম জলবহনকারী নদী হল – মাতলা ।
60. অজয়নদ -এর উৎপত্তি – দুমকা উচ্চভূমি থেকে ।
61. 2011 জনগণনা অনুসারে বাংলার বেশি জনসংখ্যাযুক্ত জেলা হল – উত্তর 24 পরগনা (10082852 জন) ।
62. 2011 জনগণনা অনুসারে বাংলার কম জনসংখ্যাযুক্ত জেলা হল – দক্ষিণ দিনাজপুর (1670931 জন)
63. 2011 জনগণনা অনুসারে বাংলার জনসংখ্যা ছিল – 91347736 জন (পুরুষ=46927389জন এবং মহিলা=44420347 জন) ।
64. জনঘনত্ব = 1029 জন/sq km.
65. জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার এক দশকে = 13.93%
66. স্ত্রী – পুরুষের অনুপাত = 947:1000
67. সাক্ষরতার হার = 77.08% (পুরুষ =82.67% এবং স্ত্রী =71.16%) ।
68. শিক্ষার হার বেশি – পূর্ব মেদনীপুর জেলায় (87.66%) ।
69. শিক্ষার হার কম – উত্তর দিনাজপুর জেলায় (60.13%) ।
70. বাংলার দুটি SEZs হল – হলদিয়া ও আসানসোল শিল্পাঞ্চল ।
71. বাংলার দুটি ম্যানগ্রোভ অরণ্যের গাছ হল – সুন্দরী ও গরাণ ।
72. বাংলার দুটি অর্থকারী ফসল হল – চা ও পাট ।
73. উত্তরবঙ্গের দুটি নদী যার জলপ্রবাহ ব্রহ্মপুত্র নদে মিলিত হয়েছে – তিস্তা ও তোর্সা ।
74. বাংলায় বিটুমিনাস কয়লা পাওয়া যায় – রাণীগঞ্জ ।
75. ভারতের শেফিল্ড বলা হয় – হাওড়া শহরকে ।
76. সুন্দরবনের আতঙ্ক বলা হয় – মাতলা নদীকে ।
77. বাংলার নবীনতম জেলা – 22 তম জেলা ঝাড়গ্রাম
78. বাংলার দীর্ঘতম ব্যারেজ – ফারাক্কা ব্যারেজ ।
79. বাংলার দীর্ঘতম সেতু – রূপনারায়ণ সেতু ।
80. বাংলার দীর্ঘতম রেলওয়ে প্ল্যাটফর্ম হল – খড়গপুর ।

আশা করা যায় এই গুলি পড়ে  আপনারা অনেক উপকৃত হয়েছেন।কোশ্চেন গুলি আপনার আগামী দিনের পরীক্ষার প্রিপারেশন নিতে  অনেক সাহায্য করবে বলে আমার মনে হয়. আমাদের সাথে জুড়ে থাকুন আর এইরকম অনেক  কোয়েশ্চেন আপডেট পেতে পারবেন এই সাইট থেকে। প্রতিদিন আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

THANK YOU

No comments

Powered by Blogger.